আমাদের ৭ বছরের অর্জন


  • খ্যাতিমান কবিদের কবিতা: ১,২৩৬ টি
  • আসরের মোট কবিতা: ১০১,৪৯৭ টি
  • আলোচনামূলক লেখা: ২,৬৬৫ টি
  • কবিতার আবৃত্তি: ৩৬৬ টি

  • মোট সদস্য সংখ্যা: ৫,৮৪৯ জন
  • কবিতা প্রকাশ করেছেন: ৪,৪০৯ জন
  • নিয়মিত লিখে চলেছেন: ১,০৩১ জন

সাম্প্রতিক মন্তব্যসমূহ

বাংলা কবিতা

বাংলা-কবিতা ওয়েবসাইটটি প্রখ্যাত বাঙালি কবিদের বাংলা কবিতার এক অনলাইন সংগ্রহশালা। পাশাপাশি সৌখিন কবিদের জন্য রয়েছে "কবিতার আসর" বিভাগ। এখানে যে কেউ তার স্বরচিত কবিতা প্রকাশ করতে পারেন। এছাড়াও কবি ও কবিতা নিয়ে আলোচনার জন্য রয়েছে "আলোচনা সভা", এবং উপস্থিত কবিদের সাথে সরাসরি কথা বলার জন্য "কবিদের আড্ডা" নামক নতুন বিভাগ। আমাদের বিশ্বাস আমাদের এই ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা বাংলা সাহিত্য, কবিতা ও আমাদের দেশীয় কৃষ্টি-কালচারকে বিশ্বের নানা প্রান্তে ছড়িয়ে থাকা নতুন প্রজন্মের বাঙালিদের কাছে আরও পরিচিত করে তুলবে।

Bangla Kobita is a collection of Bengali poems from renowned Bengali poets. It also features a section "Kobitar Ashor" where new poets can publish their poems. We also offer a new section "Alochona Shobha" to discuss on poet and poetry related topics, and "Kobider Adda" to live chat with other poets. We hope this site will bring Bangla literature, poetry and traditions of our culture closer to Bengali people worldwide.

সাম্প্রতিক কবিতাসমূহ

বিখ্যাত কবির কবিতা আসরের কবিতা
দান (২) - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর তোমাদের জয় হবেই - সোলাইমান
নীড় - জসীমউদ্দীন আমি কিছু মনে করিনি - জসীম উদ্দীন মুহম্মদ
শেষ সঞ্চয় - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর অর্কেষ্ট্রা - আরিফ নীল
নাগকুমারী - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর উত্তাল মন - কাজী নাহিদ আক্তার ঝর্না
রূপ - জসীমউদ্দীন মন - প্রদীপ কুমার পাত্র
তরুণ কিশোর - জসীমউদ্দীন বিপ্লবের কান্ডারী - এম.এম. হাওলাদার
কৃষাণী দুই মেয়ে - জসীমউদ্দীন একটি বর্ষণ হৌক - আহমাদ সা-জিদ(উদাসকবি)
চৌধুরীদের রথ - জসীমউদ্দীন আমি - কৌশিক পাল
দ্বিপ্রহরে - যতীন্দ্রমোহন বাগচী প্রিয় অজানি - ওসমানী
শুভক্ষণ - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর গীতি চয়ন—৭(নিদ্রা-হারা পাপিয়া) - হরষিত দেবনাথ

বাছাইকৃত লেখা

নীড়

গড়াই নদীর তীরে,
কুটিরখানিরে লতা-পাতা-ফুল মায়ায় রয়েছে ঘিরে।
বাতাসে হেলিয়া, আলোতে খেলিয়া সন্ধ্যা সকালে ফুটি,
উঠানের কোণে বুনো ফুলগুলি হেসে হয় কুটি কুটি।
মাচানের পরে সীম-লতা আর লাউ কুমড়ার ঝাড়,
আড়া-আড়ি করি দোলায় দোলায় ফুল ফল যত যার।
তল দিয়ে তার লাল নটেশাক মেলিছে রঙের ঢেউ,
লাল শাড়ীখানি রোদ দিয়ে গেছে এ বাড়ির বধূ কেউ।
মাঝে মাঝে সেথা এঁদো ডোবা হতে ছোট ছোট ছানা লয়ে,
ডাহুক মেয়েরা বেড়াইতে আসে গানে গানে কথা কয়ে!

[বিস্তারিত]

প্রথম চুম্বন

স্তব্ধ হল দশ দিক নত করি আঁখি—
বন্ধ করি দিল গান যত ছিল পাখি।
শান্ত হয়ে গেল বায়ু, জলকলস্বর
মুহূর্তে থামিয়া গেল, বনের মর্মর
বনের মর্মের মাঝে মিলাইল ধীরে।
নিস্তরঙ্গ তটিনীর জনশূন্য তীরে
নিঃশব্দে নামিল আসি সায়াহ্নচ্ছায়ায়
নিস্তব্ধ গগনপ্রান্ত নির্বাক্ ধরায়।
সেইক্ষণে বাতায়নে নীরব নির্জন
আমাদের দুজনের প্রথম চুম্বন।

[বিস্তারিত]

তোমাকে (অপ্রকাশিত)

একদিন মনে হতো জলের মতন তুমি।
সকালবেলার রোদে তোমার মুখের থেকে বিভা–
অথবা দুপুরবেলা — বিকেলের আসন্ন আলোয়–
চেয়ে আছে — চলে যায় — জলের প্রতিভা।
মনে হতো তীরের উপরে বসে থেকে।
আবিষ্ট পুকুর থেকে সিঙাড়ার ফল
কেউ কেউ তুলে নিয়ে চলে গেলে — নীচে
তোমার মুখের মতন অবিকল।
নির্জন জলের রঙ তাকায়ে রয়েছে;
স্থানান্তরিত হয়ে দিবসের আলোর ভিতরে

[বিস্তারিত]
 
Quantcast