একটু পরেই যমদূতেরা আসবে;
আমার বিদেহী আত্মাকে নিতে,
জন্মাবধি ভিতরে যার এক পাপাত্মার বাস,
তাকে আর রুখবে কিসে?
কিছু দিন সুখে থাকো তোমরা,
আমি আবার আসবো ফিরে।


আমি একবার মরেছিলাম,
বক্ষে বিদ্ধ তীরে মাখা সেই
নিখিল বিষের দংশনে,
রক্ত মাখা সেই দশানন দেহটা
লুটিয়ে পড়েছিলো যুদ্ধের দামামায়,
সাগর পাড়ের ঐ রাক্ষস রাজ্যে।


আমি আবার মরি,
স্বর্গ দেবীর অস্ত্রের আঘাতে,
মায়ায় ঘেরা সেই পর্বতের পাদদেশে,
আমার মস্তক বিহীন দেহ
লুটিয়ে পড়েছিলো তাঁরই চরণে,
যে দিয়েছিলো অমৃত বর।


আমি বারবার মরি,
সকালে মরি, বিকালে মরি;
সৃষ্টের পালনে দুষ্টের দমনে,
চারদিকে ঘুরে ফিরে আমার বিদেহী আত্মা,
যখন তখন, যার তার মধ্যে;
আমি ঢুকে পড়ি অনায়াসে,
এবার তোমরা মারো আমাকে,
নয়তো চিরতরে থেকে যাবো।


আমি এইবার মরবো তোমার হাতে,
চালাও ছুরি, করো আঘাত;
চালাও তোমার যত আছে মৃত্যুবাণ,
বের করে নিয়ে আসো,
বুকের ভেতর লুকিয়ে থাকা আজন্ম শয়তানটাকে।
           ---- ০ ----


কাব্যগ্রন্থ: প্রহর কাটে নীলকণ্ঠের ভালোবাসায়
প্রকাশকাল: একুশে গ্রন্থমেলা, ফেব্রুয়ারি ২০১৩
প্রকাশক: মাজেদুল হাসান, জয়তী পাবলিকেশন