দুর্গম গিরির পথ পাড়ি দিতে তোমার কিসের এতো ভয়?
অক্লেশে এসো পুরাতনকে ভেঙে দিয়ে নতুনেরে করি জয়,
বক্ষজুড়ে যা কিছু তুমি করেছো লালন সেতো তোমার নয়,
আর কতো কাল জ্বলে পুড়ে তুমি তিলে তিলে হবে ক্ষয়?


ভুলে যাও সব জরাজীর্ণতা, মুছে দাও বক্ষের যতো ভয়;
দেখো চেয়ে পূর্ব দিগন্তের নতুন সূর্য নতুনেরই কথা কয়,
ভ্রষ্টাচারের এই নষ্ট সমাজ অনাদরে হয়ে আছে ধূলিময়,
এসো তবে মাটির সুবাস গায়ে মেখে সাম্যেরে করি জয়।


বজ্রকণ্ঠে এসো হে যুগের তরুণ, করো না আর নয়-ছয়;
দেখো চেয়ে দেশ মাতৃকা অমানিশার অন্ধকারে ডুবে রয়,
হায়েনাদের রুদ্ধদ্বারের গণতন্ত্রে আজ ভাঙ্গনের বাতাস বয়,
এসো তবে সকল তন্ত্র ভেঙে দিয়ে মানবতন্ত্রের করি জয়।


বাংলার মেঘলা আকাশ রংধনুর রঙে যতক্ষণ না রঙিন হয়,
ততক্ষণ মোরা দুর্নিবারে লড়েই যাবো যতক্ষণ প্রাণে সয়,
সমালোচকেরা সমালোচনা করেই যাবে তাতে কিসের ভয়?
অক্লেশে এসো পুরাতনকে ভেঙে দিয়ে নতুনেরে করি জয়।
                      ---- ০ ----


কাব্যগ্রন্থ: প্রহর কাটে নীলকণ্ঠের ভালোবাসায়
প্রকাশকাল: একুশে গ্রন্থমেলা, ফেব্রুয়ারি ২০১৩
প্রকাশক: মাজেদুল হাসান, জয়তী পাবলিকেশন