৭.
http://www.bangla-kobita.com/jibanananda/odbhut-adhar-prithibite-aaj/


রবীন্দ্রোত্তর বাংলা সাহিত্যের সবচেয়ে জনপ্রিয় কবি, কবি জীবনানন্দ দাশের এই কবিতাটি অনুভবী মানবসত্তার অভিজ্ঞতাপ্রসূত এক চিরন্তন রচনা যা মানুষকে বারবার ভাবায় তার চলার পথে এত কথা, এত  সুর, এত গান, এত মহামানবের এত মহা বাণী - তবু কোথায় সে পথ হারায়, আলোকের এই ঝরনাধারায় কি করে এত অন্ধকার নেমে আসে !
সভ্যতার সংকট যখন যখন তীব্র হয়, জীবনানন্দ দাশের এই কবিতা তখনই প্রাসঙ্গিক হয়ে পড়ে l পৃথিবীটা প্রকৃতি, কিন্তু তার মধ্যে মানুষ যুগ যুগের প্রচেষ্টায় গড়ে তুলেছে তার বাসের অনুকূল পরিবেশ l বিজ্ঞান প্রযুক্তির কল্যাণে একদিকে যেমন ব্যবহারিক জীবনে নাগরিক সুখ স্বাচ্ছন্দ্যের জোয়ার এসেছে, তেমনি আবার সূক্ষ্ণ মানবিক অনুভূতিগুলির চর্চা চলেছে সংস্কৃতির নানা ধারায় l আধ্যাত্মিক অন্বেষণের ফলে এসেছে কত ধর্মবিশ্বাস, কত দর্শন - এই ধরাধামে মানবজাতি সর্বশ্রেষ্ঠ সৃষ্টির দাবীদার হয়েছে l
কিন্তু একই সঙ্গে চলেছে প্রভুত্ব প্রতিষ্ঠার প্রচেষ্টা l অসীম  উচ্চাকাঙ্ক্ষা মানুষকে কখনো করেছে উদ্যমী, আবার এই উচ্চাকাংখার বশীভূত হয়েই মানুষ হারিয়েছে হিতাহিত জ্ঞান l অন্যের ওপর প্রভুত্ব প্রতিষ্ঠার জন্য মানুষ মানবতার সীমা অতিক্রম করেছে l মানবজাতির ওপর এসেছে অন্ধকারের শাসন l আমাদের এই সুজলা, সুফলা, সুন্দর পৃথিবীতে সত্য-রুপী প্রেম-রুপী  দিনের আলো নিভে গিয়ে এক অদ্ভুত আঁধার নেমে এসেছে শোষণ, অত্যাচার, লুণ্ঠনের l মানবাধিকার হরণ হচ্ছে অবলীলায় l এই আঁধার পৃথিবীতে জ্ঞানের কদর নেই, প্রেমের কদর নেই, পৃথিবী শাসন করছে হৃদয়হীন, প্রেমহীন, জ্ঞানহীন, করুণাহীন কতিপয় স্বার্থান্বেষী মানুষ l তারা পরিবৃত আছেন চাটুকার, তোষামুদে কিছু ব্যক্তির দ্বারা যারা অসত্য বচন, অপসৃষ্টির দ্বারা এই অন্ধকারকে আরও বাড়িয়ে তুলেছেন l  যারা সত্য সাধনা করেন, সৎ শিল্প চর্চা করেন, যারা এখনও নিজের এবং অন্যের ওপর বিশ্বাস রাখেন, মানুষকে ভালোবাসেন, ভালোবাসতে শেখান - তাদের আজ সমাজে, দেশে কোনো কদর নেই, সম্মান মর্যাদা নেই l যুগে যুগে তাঁরা কখনো ক্রুশবিদ্ধ হন, কখনও শেয়াল-শকুন রুপী নিষ্ঠুর মানবতা তাদের হৃদয় ছিঁড়ে খায় l
কবি জীবনানন্দ দাশ তার নিজের যুগের পরিপ্রেক্ষিতে কবিতার অমোঘ সত্য বাণীগুলি লিখেছিলেন l সভ্যতায় যখন যখন সংকট আসবে, মানবজাতি তার মহত্বের দিশা হারাবে - কবির কবিতার এই চরণগুলি বারে বারে প্রাসঙ্গিক মনে হবে l
বাংলার মাটি, জল, নদী, প্রান্তর - প্রাকৃতিক নানা চিত্রকলা কবি জীবনানন্দ দাশের কবিতায় যেমন এক নৈসর্গিক ও নান্দনিক সৌন্দর্যের বাতাবরণ সৃষ্টি করে, তেমনি বর্তমান কবিতায় মানবতার পতনে কবি ব্যথিত l হৃদয়হীন লোকেরা আজ পৃথিবী চালাচ্ছে l সত্য, সৌন্দর্য  ও প্রেমের সাধকেরা অপমানিত, অত্যাচারিত l সভ্যতার সংকটের এই চিত্র ফুটে উঠেছে কবিতাটির প্রতিটি ছত্রে l