তোমার পূজার আয়োজনে  
ঘন্টা বাজে মন্দির অঙ্গনে,    
ফুলের মালায় ফুলে ফুলে ঢেকে মূর্তিটিরে
তুমি সেথা আছ ভেবে সবাই তাকে প্রণাম করে।
ওই খানেতে তোমায় পাবে
কি বিশ্বাসে আকুল ভাবে
সকল বাঁধা টুটে  
সকলে যায় ছুটে  
যাবার সময় দলে তাদের পায়ে  
দুঃখ নিয়ে বুকে যারা পথে আছে শুয়ে।    


সবাই সমান একই মাটির গড়া
রক্তেস্রোতে বইছে সবার একই ছন্দধারা  
একই আশা সবার বুকে
একটুখানি শান্তি-সুখে
কাল কাটাবে খেয়ে-পরে ভালবাসায় ঘিরে -  
এরই মাঝে কেন তবু ধংস আসে বারে বারে,
তোমায় নিয়ে মারামারি ধর্মে তোমার মাতাল হয়ে  
হাজার নামে হাজার কথায় তোমার দোহাই দিয়ে?


সে যদি হয় শুধু নানা কথায় ভরা, উস্কে দেয় হানাহানি
তবে মিথ্যে তুমি মিথ্যে তোমার বানী।
বড়-ছোটোর গর্বেতে  
সত্যি-মিথ্যার তর্কেতে
সবাই রক্ত ঝরায় পরস্পরের – একি মিথ্যা অহংকার!
মাতে সবাই সত্য ছেড়ে অসত্যের বন্দনায় - ইচ্ছা সেকি তোমার?


পাষাণ ভেঙে বাহিরেতে নাই যদি বা এলে
নাইবা যদি ডাকলে সবে পরাণ খুলে
মিলিয়ে দিতে সব মানুষে একসাথে,    
নাইবা যদি আনলে সবে একই সত্য পথে
নাই যদি বা রইলে তুমি সবার হৃদয়েতে
কি কাজ আমার তোমায়, যদি তুমি বন্দী থাকো মন্দিরেতে?