১) আঁধার-আলোর নিরন্তর খেলা


যে আলো ভোরে উঠেছে ফুটে আঁধারের বুকে  
সাঁঝের বেলা আঁধারেই সে মিলালো পরম সুখে
আঁধারে রাতের কানাকানি  
জগতে দিল জীবন আনি
পূনরায় প্রভাতে দিকে দিকে দিনের কোলাহল
জাগিল সে জীবন মুক্ত-সলিল ফসলে-ফুলে উদ্বেল।  


জগতে অনন্ত কাল আঁধার-আলোর নিরন্তর খেলা
করেছে বাসর রচনা তোমার-আমার মিলন মেলা...


২) আমি এসেছি কি - আসিব আবার


বসন্ত-প্রভাতে রবির কিরণ যখন মেলেছে আঁখি  
কুঁড়ি থেকে ফুল ফোটে, বলে, “আমি এসেছি কি?  
এ বসন্ত উৎসবে আজি সকলের সাথে মিশে
সকলের সাথে হেসে
আমি পূর্ণ আমি পুণ্য,
লেগেছে বসন্তের ছোঁয়া আমার প্রাণে, আমি ধন্য  
সার্থক জীবন শেষে  
আবার যাব চলে নিরুদ্দেশ সে দেশে
সাথে নিয়ে ফিরিবার আমন্ত্রণ - বসন্তের শাশ্বত বানী,  
আগামী বসন্তে আসিব আবার মায়ায় বাঁধিতে জগতখানি।”