তুমি কি দেখেছো
অচিরেই ফাটল-
কারো
অতি ধীরে ধীরে  গলাটা -নিচু হয়ে আসতে
চোখের পাতা গুলো শুকিয়ে যেতে।
চোখে অজস্র  ট্রিপ ট্রিপ জল ঝরতে।
তুমি কি দেখেছো।
রানীক্ষেত রোগের মত মানুষ লুকিয়ে যেতে।
সপ্ন যুদ্ধের ময়দান থেকে মানুষ বিদায় নিতে।
আকাশ বাতাশে অন্ধকার অন্ধকার
অনুভব করতে।
সঙ্ঘ ছেরে নিসঙ্ঘ হতে
বুকচিরে চিৎকার করতে
খোদার কাছে বার বার অভিমানী হতে
তুমি কি দেখেছো।
সকাল সকাল  পুজা করতে
তুমি কি দেখেছো
প্রাথনার মাঝে যন্ত্রণায় কেদে দিতে
হাল ছেরে বেহাল দশায় পরিণত হতে
কান্নায় চোখের পাতা গুলি ফুলিয়ে ফেলতে
শেস রাতে স্রষ্টার কাছে বিচার দার করতে
বাহু ডোরে নিজের শক্তি নিশপ্রান হতে
হঠাৎ ভেঙে মাটিতে লুটিয়ে পড়তে
অজান্তে  নিজেকে পুরিয়ে শেস করে দিয়ে
মন প্রান চুরমার হয়ে ক্ষয়ে ক্ষয়ে


নিসঃ চিহ্ন মরুভূমি র মতো হয়ে
অচিরেই শেষ হয়ে দেহের মাঝে  একটা ফাটল ধরতে


    --------------------