আমার দেহ নামক গাড়ীর জীবন চাকা
স্তব্ধ করে দিয়েছিল আখাউড়া হীরাপুরের নাজমিন
মরিচিকা আর জং ধরে
জীবন চাকা গিয়েছিল ক্ষয়ে।
খোদার অসীম কুদরতে
আত-ইয়া-ইসলাম স্মৃতি নামক
এক কষ্টি পাথর এসে
মরিচিকা আর জং তুলে দিয়ে ঘষে
নামিয়ে দিল আমায়
জীবন যুদ্ধের রাজপথে।
আমি এখন রাজপথের লড়াকে সৈনিক
নেই কোন মৃত্যু কিংবা পরাজয়ের ভয়
প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে জেগে
যুদ্ধ শুরু করি শিঙ্গাপুরের ইট, বালু
রড আর সিমেন্টের সাথে, জীবনের সাথে,
এই পরিবেশ আর প্রকৃতির সাথে।