এই শহর আমায় মুছে ফেললেও, আমি মুছে ফেলবোনাকো
মনে রাখবো মৃত্যুর পরও অনন্ত দিন!
এই ব্যস্ত মানুষের হাটাচলা, কানেকানে ফিসফিস
গ্রীন সিগনাল বাতি, চোরাচালানবাহী ট্রাক আর উন্মাদ পলিটিক্স!
এখানকার কর্পোরেট অফিস আদালত, জেলখানা, ফিল্মস্টুডিও
শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, খেলার মাঠ, চৌরাস্তা
এমনকি রতন মামার চায়ের দোকানটাও কতো মনে রাখবার মতো!
এখানকার প্রতেকটা ইমারত হৃদয়ে গেঁথে যায়, যেন আজন্ম চেয়ে দেখা পর্বত!
এখানে বেড়ে ওঠা প্রতিকূল হাওয়ায় মিশে, চোখে চোখে চোখরাঙ্গানিতে বেপথের গলি ঘেসে ;
অযাচিত খুশি মিলে সস্তা কাজের ঠাইয়ে, 'যা করি তাতেই টাকা!'
এখাকার ফিল্ম পোস্টার গুলো সহজ রাস্তায় টানানো - যাতে নেই যুবতীর বাহুতে কাপড়?
এখানে সিগারেটের মতো ঘোর রহস্য নেই আর কোনো ধোয়ার আসর ;
তবু বেড়ে উঠে কাকের মতো দৃষ্টি দেই এপাশ ওপাশ গলিতে,
কতো পাতি কবি জন্মায় তাতে, লিখে ভাউণ্ডুলে কবিতা দেয়ালে দেয়ালে;
এখানকার ক্যাকটাসগুলো বেঁচে থাকে আলোবাতাস হীন,
যেখানে তুমি আমি কতো স্বাধীন?
এখানের হাটবাজার নিত্য অস্থির, তবু প্রেম নামক কতো চোরাবালি করে বাস!
পরিচিত মুখগুলো কতো কোমায় চলে যায়, দেখা হয়না যাদের সময়ের ব্যস্ততায় ;
বুঝি ব্যস্ত হয়ে যায় অবিনাশী সূর্য, খুব যে তাড়াতাড়ি বেলা চলে যায় ;
এখানকার বস্তিগুলো দারিদ্রের আঙ্গিনা, এখানকার ফ্লাটগুলো সাজাবার যতো বাহানা
এখানকায় মিলেমিশে নিত্য বদলে যেতে যেতে আর বদলানোর কিছু থাকেনা?
যেটুকো থাকে তা মৃত্যুর পর অনন্ত দিন, এই সব মনে রাখবার জন্য;