একটা নোটিশ ঝুলানো হয়েছে তালার পাশে ;
কিংকর্তব্যবিমূঢ় চেতনা মিশে গেছে বৈরি বাতাসে এবং নতুন গন্তব্য
যেখানে ছবি নেই, যেখানে জন্ম নেই, শুধু চোখের ভাষা ঋণগ্রস্ত;
আমৃত্যু কিছু যন্ত্রনা পরিচিত শব্দ গুলোর ফাঁকে
আপন মানুষ কথা বলে যায়, নিজস্ব দূরত্ব মেপে
যাকে নিয়ে স্বপ্ন, তার ঈশ্বরপানা - বারংবার মৃত্যুরা ঠকাতে ভালোবাসে!
মানুষ স্বপ্ন দেখে, ঘনত্বে নির্দিষ্ট আয়ত্ব মেপে যত স্বাধীন;
এরপর স্বপ্ন দেখাটা কারো নেশা হয়ে যায়, সেই নেশা জীবনটাকে অস্তমিত করে নেয়;
কেউতো থাকেনা, বারংবার মৃত জল নদী - তাও আমার মতো ;
জমানো অসুখ, ক্ষয় করা সময়, নিতান্ত কতো আবৃত্তি নিজের মস্তিস্কে
জানো, নোটিশ ঝুলানো কোনো সুসংবাদ নয় ;


অন্য দশটা মানুষের থেকে, যদি একটা মানুষ ভিন্ন হয়
যার ভিন্ন পরিচয় থাকে ; কিন্তু মগজের প্রবৃত্তি ঘুরপাক খায়
নেশা, জীবনটাই নেশা হয়ে যায়;
স্বপ্নগুলো ত্রাসে ফুটে, মানুষের ভিড়ে নান্দনিকতায় মেশা
গতিপথে নিজেকে সেই আলাদা কিছু চেনা, মৃতর মতো লাগে!
এক শব্দের আর্তনাদের মতো, হৃদয়ে কতো বারুদ জমে
জানো, অনেক রাতে ঘুমকে পর করে - জীবন মৃত্যুর মাঝখানে বসে থাকলে
অনেক অভিসার ছুয়ে থাকবে, যেগুলো নোনা, যে গুলো বিরক্ত, যা কেউ পেতে চায় না ;