শরৎ-আকাশ সাগর-নীল
         শিউলি পড়ে ঝরে
মহামায়ার পড়বে চরণ
        বাংলামায়ের ঘরে
ঠাকুরদালান উঠছে সেজে
        আনন্দ না ধরে।
পুজোর কদিন
      কাটবে ভালো
           কত রকম
               জ্বলবে আলো
সারাটা দিন ঘুরব পথে
           রইব না আর ঘরে
এখন থেকে তাইতো আমার
           মনটা কেমন করে।


দিঘির বুকে শাপলা শালুক
           ফুটছে রাশে রাশে
মৌমাছিরা মধুর লোভে
           গান শোনাতে আসে।
প্রজাপতি ভ্রমর ওড়ে
              সর্বদা তার পাশে।
সকালবেলা
       বেরিয়ে পড়ি
               স্নিগ্ধ আলোয়
                      স্বপ্ন গড়ি
হিমেল হাওয়ার পরশ পেয়ে
          কাশফুলেরা হাসে
মুক্তোদানা শিশিরকণা
         পথের পাশে ঘাসে।


এসেই গেল মহালয়া
                হৃদয় ফুরুফুরু
আকাশ-বুকে উড়ছে তুলো
                হিজল ঝুরুঝুরু
নেইকো কোনও বিজলি চমক
                মেঘের গুরুগুরু।
পল্লি শহর
       উঠছে সেজে
              পুজোর ঘণ্টা
                     উঠবে বেজে
ষষ্ঠী এলেই মায়ের বোধন
                মন যে উড়ু উড়ু
আনন্দ তাই বাঁধনহারা
               এবার পূজা শুরু।