সকাল থেকে মেঘবালিকার
মুখটা কেমন ভারী
হাসতে মানা এমন সমন জারি,
সুয্যিমামা হাসছে না তো
হার মানবে আঁধার রাতও
ক্ষণে ক্ষণে পড়ছে ঝরে বারি।


আমাদেরও বন্ধ খেলা
ছুটির দিনে কাটল বেলা
পারলে আমি দিতেম করে
আকাশটাকে নীল,
রবির আলোয় ক’রত তখন
ধরিত্রী ঝিলমিল।


টুনটুনি-মা বেগুন গাছে
ছানার সঙ্গে বসেই আছে
খিদেতে চঞ্চল,
ওদের ব্যথা বুঝতে পারে
থামছে না যে জল।


এসব যখন ভাবছি আমি
হঠাৎ গেল বৃষ্টি থামি
ঝলমলিয়ে উঠল তখন রোদ,
আমরা এবার বেরিয়ে পড়ি
যাক, শেষ অবধি জাগল শুভবোধ।


চতুর্দিকে পড়ল সাড়া
সবার এখন কাজের তাড়া
প্রজাপতি উড়ছে ফুলে ফুলে,
টুনটুনিও খাবার এনে
দিচ্ছে মুখে তুলে।