কংক্রিটের দেয়াল
আর স্বার্থের কাঁটাতারে আচ্ছন্ন মন
মনের ঝরোকাগুলো রুদ্ধ
বৃক্ষ বা প্রকৃতির নিঃস্বার্থপরতার
কোন প্রভাব নেই অন্তরে
চোখের সমক্ষে বিপর্যস্ত মানবতা দাঁড়িয়ে
তবু নির্বিকার-প্রতিক্রিয়াহীন
আদমের দুর্দৈব যন্ত্রণায়ও কাঁদেনা প্রাণ
ছিন্নমূলের হাসিমূখ দেখলেও মন হয়না প্রফুল্ল।


আচ্ছন্ন চিত্ত ভালবাসে স্বার্থান্ধ অধীনতা
স্বার্থসাধন অন্ধকারে দৃষ্টিহীন
লোপ পায় মানব-মানসতা।


সে অন্তর প্রেম পাবে কিভাবে?
যার চোখে পড়েনা গোধূলি-লগ্নে দিগন্তের কারুকাজ
সে হৃদয়ে অনুপস্থিত ভালবাসা
যার নয়ন কভু উর্ধ্বে তাকিয়ে দেখেনি
দেখেনি আকাশের উদারতা কেমন?
সে সত্তা নির্লিপ্ত-প্রতিবাদহীন
যার কর্ণে কখনো শুনেনি উত্তাল সাগরের ঢেউ-গর্জন
যে কভু অবলোকন করেনি
পাহাড়ের বিশালতা, অবিচলতা বা দৃঢ়তা।


ফিরোজ, সিদ্ধেশ্বরী, ২৬/০৬/২০১৫