হৃদ মন্দিরে   কড়া কে নাড়ে
পূজিব যারে   এলো নাকি সে।।
দিন রজনী     প্রহর গণি
কবে সে গুণি  দুয়ারে আসে।।


আমি অভাগা ভক্তি বিহীন
কেমনে হবো তাহে বিলীন
তাঁর বিরহে   যাতনা সহে
অশ্রু প্রবাহে   নিশি দিবসে।।


সইবো কত বেদন ব্যথা
গাইবো কত বিরহ গাঁথা
নয়ন ঝরে    তাঁরই তরে
হৃদ পিঞ্জরে   কবে সে আসে।।


চাতক সম প্রতীক্ষা করি
মনে আশার ভাসাই তরী
সখার গলে     পরাব বলে
মালিকা ফুলে   রচি গো বসে।।


আজ সাঁঝেতে পাগল প্রায়
শূন্য হিয়া যে সখারে চায়
এ কি গো হল   মন ব্যাকুল
আঁখি আকুল     দর্শন আশে।।