রিক্সায় চড়ে মজা করে
রিক্সাওয়ালারে জিগায়,
বতো দেখি ভাই!
কয় পাকে গাড়ি চানপুর যায়?
ময়লা দাঁতে হালকা হেসে রিক্সাওয়ালা কয়,
সেটা আবার কোথায়?
মাথায় রেখে হাত হয়েছি কু-পো-কাত,
বলি হাইরে হাইরে হাই!
হ্যান্ডেল ধরে প্যাডেল মেরে সীট করলে ক্ষয়,
আজো রইলো অজানা কয়পাকে গাড়ি চানপুর যায়।


হঠাৎ দেখি রাস্তায় জ্যাম
অপর দিকে ট্রাফিকরা করছে আরাম,
সে আমি ভুক্তভোগী ছুটছে দেহের ঘাম।


আমি কয়লাম, বলতো দেখি ভাই!
খায়দায় ভুড়ি নাচায়
রাস্তায় দাড়িয়ে হাত পেতে চায়
অথচ তারা ফকির নয়।
রিক্সাওয়ালা মুচকি হেসে ন্যাকচাইয়া ন্যাকচাইয়া কয়,
এই সব ধাদার উত্তর আমার জানা নায়।
আমি বল্লাম, হাইরে কপাল তোমার!
ভুড়ি ভরে বন তলিয়ে জীবন করলে পার,
আজো দেখলেনা দুনিয়ার আজব কারবার।


হঠাৎ কিছু মস্তান ছুরি দেখিয়ে করলো ধাওয়া।
মানিব্যাগ, ঘড়ি, মুবাইল, সঙ্গে ছিলো যাহা
সবি দিলাম সপে
জানের ভয়ে করলাম না একটু আহা।


রিক্সাওয়ালা বড় সেয়ানা  আমায় দিলো ঝাড়ি।
কাজের বেলা ম্যাউ ম্যাউ আর মুখে মুখে হিটলারী।