সেই যে কোথা ছিলাম আমি
আজকে এখন কোথায়?
কল্পনার ওই জগতটাতে
প্রতিমুহূর্তে ভেসে বেড়াই।


তখন কি রূপ ছিলাম আমি
দুনিয়া টা বা কেমন?
ভাবতে ভাবতে অন্য দেশে
হারিয়ে যায় অবুঝ মন।


সুজলা এই জগত মাঝে
আনলেন আমায় যিনি,
মমতা আর স্নেহ আদরে
দেখালেন চিরসুন্দর ধরণী।


তখনও কী বাহুডোরে আমায়
রেখেছিলে এমন করে?
যখন আলো বাতাস পেতাম না যে
তোমার ছোট্ট ঘরে।


পৃথিবী সমান আনন্দ আর
স্বর্গসুখের বাস,
নিত্য ছিল তোমার ছায়ায়
আমার বসবাস।


পাহাড় সমান দিনগুলোতে
সন্ধ্যে প্রদীপ নেভে,
এক নিমিষেই ভুলে যেতে
চোখের মণির কথা ভেবে।


গড়ে উটা তিল তিল করে
রক্ত মাংসের দেহ,
সবই তোমার আদর মমতা
আর দুঃখ ভুলা স্নেহ।


" মা "গো  তোমার চরণতলে
নতশিরে শ্রদ্ধা,
কে আমায় আলাদা করবে
কার এত বড় স্পর্ধা!


তোমার চরণসেবায় যাপিত হোক
বাকি দিনের হায়াত,
তুমিই আমার স্বর্গ মা গো
তুমিই তো জান্নাত  ।।