এখনও আকাশের রঙখানা খুব নীল,
তাই আজও উড়ে বেড়ায় কত চিল।
এখনও ছায়া ঘনিয়ে আসে নীপবীথির বনে,
তাই আজও পাখীরা গান গায় আপন মনে।
এখনও পূর্নিমার চাঁদ ছড়ায় মায়াবী জোছনা,
তাই আজও ঝিঁঝিঁ পোকা করে নহবত রচনা।
এখনও তোমার ঐ আলুলায়িত চুলের আবরণ,
তাই আজও বেণীদ্বয়ে সৃষ্ট বিপরীত মেরুকরণ।
এখনও তোমার ইতঃস্তত চোখে দ্বিধাদ্বন্দ্ব বোঝাই,
তাই আজও আমি কবিতার অনুপ্রেরণা খুঁজে পাই।
এখনও তোমার ঠোঁটের পাপড়ি দুটি গাড় লাল,
তাই আজও নেশা না করেই আমি যে মাতাল।
এখনও তোমার বুকের জমি ভীষণ উর্বর,
তাই আজও কৃষিকাজ করতে আমি তৎপর।
এখনও তোমার গরম নিঃশ্বাসে প্রাণবায়ু পাচ্ছি,
তাই আজও বেঁচে আছি।