অন্তরের সবটুকু জায়গাই বিধ্বস্ত!
তোকে কোথায় বসতে দেই অতিথি!?
তুই এলি,আমিও সর্বস্বান্ত,তোকে কি খেতে দেই বল?
আমার না আছে জল, না আছে ফল,
সুগন্ধি পাপড়ি গুলো একএক করে সব শুকিয়ে মুড়িয়ে গেছে,
গোলাপের সব রং বিলুপ্ত কাঁটা গুলো তাক করে সাই দাড়িয়ে....!
অভিমানে এতোটা নিজেকে ভিন্ন রুপে সাজিয়েছি,এখানে তোকে কি করে বলি তুই আয়!?


বেসুরে গান,কথার কোন মানে নেই,
পৃথিবীর ভূপৃষ্ঠ থেকে সামান্য
যে বাতাস তরঙ্গিত করে কালো দীঘির চুপসে যাওয়া জল অনুভূত হয় ,
এত টুকু অনুভূত হয় না -অবরুদ্ধ ঘোর অন্ধকার আমার বিরান হৃদয় '',,
আমার না আছে ঘর,
না আছে আপন-পর,,


আমার নাইকো চক্ষের জল,
নাইকো আমার দুঃখের কোন ফসল,,
তুই অতিথি, অতিথি পাখির মত ফিরে যা...,,
নিজের বসার জায়গা নেই,
তোকে কোথায় বসতে দেই!?
নিজের চলার পথ নেই
তোকে কি আর দ্বিক দেই


নীরবে নেশাছর মস্তিষ্ক পঁচে গলে গন্ধ ছড়াছড়ি,
তোর রুপ আমায় কি আর নেশাধরাবেরে! হা হা হা হা...,,
মাতালে মাতালে সব, "সময়", পার হয়,
আমার কি আর সাধ্য আছে বুঝবার,
তুই আমার পৃথিবী সবুজে শ্যামলে ধরবি কমলে....!


বসন্তের সব টাই আমি দেখেছি, কি আছে না আছে!,
তুই কি বসন্ত ছড়াবি বল শুনি?
সমুদ্রের অতলগ্হভরে আমার বসবাস, তুই আমায় কি সাঁতার শেখাবি অতিথি?
তোকে পাশে বসাবার একটুখানি মন নেই,
কি আর গল্প কথায় আমায় ভোলাবি বিষন্ন অতিথ....!?
আমি জন্মান্তরের বিষাদী বিবাদী অনল,,