ভালোবাসো ,
তোমার পায়ে পড়ি , ভালোবাসো।  
সেই পাগল ছেলেটার বুক ফাটা আর্তনাদ শুনেনি মেয়েটা।  
শুনেনি মেয়েটা ছেলেটারচিৎকার করা কান্নার শব্দ।  
মেয়েটার সারা শরীরে ছিল অহংকারের দম্ভ।  


মেয়েটা ছিল পলাশ কুসুম ,
সাদা গোলাপের মতো।  
মনকাড়া দৃষ্টির চাহনিতে কত পথিক রোজ পথ হারাতো ,
তরঙ্গিণীর মতো চলতে থাকা
নব কিশোরের পথ হঠাৎ থেমে যেত ,
মোহে , কামনায় , লালসায়।  
কেউ ভালোবাসেনি।  
ওটাকে আমি ভালোবাসা বলি না ,
ওটাকে আমি কামনা বা লালসা বলি।  


মেয়েটা তার নিজ রূপে অন্ধ ছিল ,
বুঝতনা কি ভালো , আর বুঝতোনা কি মন্দ।  
কাম বাসনায় ,ওষ্ঠ হতে লালা ঝরে যেই ছেলেটার ,
মেয়েটা উন্মাদ তার জন্য।  
বুক থেকে কাপড় খুলে ইজ্জত নিলো লুটে ,
বন্ধুর আসরে হিরো সেজে ঘটনা দিলো  রটে।  


নিজের পায়ে কুঠার মেরে
কাঁদল মেয়েটা যেই ,
চেয়ে দেখে ওই পাগল ছেলেটা
মেয়েটার পাশেই।