রমজানের ঐ রোজা শেষে ঈদের চাঁদ হাসিলো আকাশে
জনম দুঃখীনির মন হাসিলোনা তবে দুঃখের  বাতাসে ।
কোন রকম দিন যাপন করিল এতো দিন কাল ধরে
ছেলে তার বুঝেনারে লাল জামা কিনে দিতে তারে ।
ছেলে আমার যাদু আমার  বুঝাইতে চাইলো জনম দুঃখীনি মা
ছেলে তার বুঝেনারে দুঃখীনির কষ্টের দামামা ।
ছেলে তার চাইনি প্যান্ট ,জুতা , পাঞ্জাবী -পায়জামা ।
এতটুকু বায়না ধরেছিল দুঃখীনির তরে একটি লালজামা ।
ঈদে যামু ,সেমাই খামু , লাল জামা পরমু , ছেলে তার বলে
দুঃখীনি ছেলেকে বুকে জড়িয়ে চোখ ভাসায় জলে ।
শত মহাজনের কাছে হাত বাড়াল জনম দুঃখীনি মা
ছেলে বায়না পূরণে ডাকিল তাদের খালু ,মামা ।
যাকাতের কাপড়ের জন্যে দাড়াইলো লাইনে জুটলোনা কপালে
দুঃখীনি বলে 'ওখোদা রাখিলা ক্যান মাটির মায়াজালে '।
ছেলের বায়না হইলোনা পূরণ কাঁদে মা ঘরে
ছেলে তার কেঁদে কেঁদে ঈদে গেল পুরান জামা পরে ।।
<০৭ সালে একাদশ শ্রেনীতে থাকতে লেখা>