আমি ভালো নেই
অচিন্ত্য সরকার


আমি ভালো নেই,একদম ভালো নেই।
ডাক্তার বলেছে,বহু বছর আগে একটা
নিকেল করা পেরেক ঢুকেছিল বুকের বাঁ দিকে।
মনে করে দেখলাম,এক কুটিল ভন্ড,সাধুর ছদ্দবেশে
জিয়ন কাঠি বলে গলায় ঝুলিয়েছিল আমার।
আপন সততার বিশ্বাসে,মিথ্যে ভাবিনি কথা তার।
তারপর একদিন ঝড়ের রাতে,আচমকা বিঁধে দিয়েছিল বুকে,
বলেছিল প্রথম একটু টিস টিস করবে,তার পর সুখ হয়ে
হৃদয় ভরবে।ব্যাথা বেড়ে ক্রমশ হয়েছে যন্ত্রণা,ছটপট করেছি
রাতের পর রাত....পেরেক কিন্তু পাক খেয়েছে
এক প্রকোষ্ঠ থেকে আর এক ......পেন কিলার খেয়েছি.....
ব্যাথা থেমেছে সাময়িক...
হৃদয়ে আছে,কাজ নেই কাটা ছেড়া করে,হয়েছি অমায়িক,
আমারই তো রক্ত ঝরবে বুকে,আমারই মাথার ঘাম
পায়ে ফেলা সঞ্চয় উজাড় করে দিতে হবে ডাক্তারের ফিস,
আমারই কষ্টে অর্জিত সন্মান ভেঙে হবে খান খান......
একদিন প্রতিশ্রুতির নিশ্চয় দেবে মান। এভাবেই সয়েছি
দিনের দিনে, মাসে মাসে,বছরে বছরে।
পেরেক ও সেই সুযোগে প্রভাব ফেলেছে সারা শরীরে,
রক্তে, মাংসে, বংশে,সর্বাঙ্গে।আমার দেহের রক্ত আদ্রতা
সইতে না পেরে নিকেল খসেছে তার অঙ্গে।
এখন তার গায়ের মরচে আমার শরীরে এনেছে
টিটেনাসি ইনফেকশান। শুধু কি মান,বাঁচানোই দায় হয়েছে প্রাণ!
ডাক্তারের মতে লাস্ট স্টেজ,করা যাবে না অপারেশন,
শুধু ভরসা ঈশ্বরের নাম।তাই বলছি,আমি ভালো নেই,
বহু দিন থেকেই ভালো নেই...এতদিন বলেনি কেননা,
অভিজ্ঞ মানুষরা বলেছিল,ওটা লোহার পেরেক,জীয়ন কাঠি নয়,
আমি চোখে দেখে মানিনি,সময়ে জীবনের দাম বুঝিনি।
সততার অজ্ঞতায়,এমন করতে আছের নৈতিক মূঢ়তায়,
ছিঁড়ে না ফেলতে পারার অভ্যাসগত দুর্বলতায়
আর পার্থিব কৃতঘ্নায় আজ আমি ভাল নেই,
অথচ একদিন ভালো ছিলাম,সবার থেকে ভালো ছিলাম।
অমানুষীয় নীচতার প্রতিয়োগীতায় হেরে আমার ভালত্বের
হয়েছে নিলাম........এতদিন বলিনি,মুখ বুজে সব সয়েছি,
লাস্ট স্টেজ তাই মুখ খুললাম।তোমাদের যে সত্যিটা জানা নেই
তা হলো,আমি ভালো নেই.....আমি,মোটেই ভোলো নেই।