মনের কাছে রই
অচিন্ত্য সরকার


জানি,আজও কেন হাজার মাইল দূর থেকে,
বার বার ফিরে ফিরে চাও আমার দিকে,
কেন তোমার কবিতার পংক্তি গুলো সব
একে একে বিঁধে যায় আমার বুকে, কেন
তোমার গানের সুরে বুঝিয়ে দাও প্রতিবার
আছো দূরে,তবু রেখেছো আমারে বুকে,
অনুভবেরা তাই কবিতা হয় দুঃখে-সুখে।


জানি এ কেনোর উত্তর,সব চাওয়া পাওয়া,
সব কামনা বাসনা,শরীরী তাড়না ছাড়িয়ে,
অনেক গভীরে;নীল সমুদ্রের নির্জন তীরে
যেখানে উদাসী এলোমেলো বাতাসেরা বয়
ঠিকানা হীন রাত্র দিন,না পাওয়া যায় কিছু
থামা যায়না,ফেরা যায়না শুধু পথ চাওয়া
নিয়ে বয়ে যাওয়া, তবু ছাড়া যায় না পিছু।



মনের গভীরের অতৃপ্ত অনুভব,পারে না
তৃপ্ত করতে হাজার পাওয়া,হাজার বৈভব;
নিন্দুকের হলুদ চোখের আড় করে চাওয়া,
সহজে রটিয়ে দেয় আমাদের চাওয়া পাওয়া
আমরা যা বুঝিনি এখনও স্পষ্ট করে-শুধু
সান্নিধ্যের ভালোলাগা সুখে,শ্বাস নিতে চাই
প্রাণ ভরে তৃষিত বুকে,শান্ত স্নিগ্ধ উষ্ণ সুখে।


তবু সংখ্যা গরিষ্ঠ ওরা,প্রেমহীন যত হিংসুটে
আপন আপন কুটিল মনের খোরাক মেটায়
নোংরা খুঁটে।তাই তো বুকের কথা বুকে রেখে,
নীরব হয়ে রই আর গুমরে গুমরে অভিমানে
কই,তোমায় কেন বোঝাতে হবে প্রিয়ে,মুখের
কথা দিয়ে,এনিয়ে বিনিয়ে,আজও সেই আমি
আগের মতো,কতটা তোমার মনের কাছে রই।