পাগলা তুই সাঁকো ঝাঁকাস না
খালের উপরে বাঁশের সাঁকো
দিচ্ছি পাড়ি তুই দূরেই থাকো
ভুলেও এই সাঁকো ঝাঁকাস না ।


পাগলা তুই সাঁকো ঝাঁকাস না
পাগল বলে এই তো সুযোগ
তার তো উঠিয়ে দিলে হুজুগ
সে কি আর শুনবে কারো মানা !  


পাগলা তুই সাঁকো ঝাঁকাস না
কি ছিল তা বলতে যাবার
চুলকিয়ে নিজের ঘা করার
স্বীয় দুর্বলতা প্রকাশ যে ঠিক না ।  


পাগলা তুই সাঁকো ঝাঁকাস না
এ কথা কারো বলতে গেলে
দুর্বলতা যে তার বুঝে ফেলে
অতিবুদ্ধিই তো বোকামি কি না !


পাগলা তুই সাঁকো ঝাঁকাস না
মস্তিস্ককে এমনি নেতিকথা  
যদি বন্ধ করি দেয়ার প্রথা
জীবনে সহসা ব্যর্থতা আসে না ।


রচনাকালঃ- রাত ১১.১১টা শনিবার, ১০ কার্তিক ১৪২৬,
২৬ সফর ১৪৪১, ২৬ অক্টোবর ২০১৯, মিরপুর, ঢাকা ।