পহেলা বৈশাখ এলেই বাঙালীর
সানকীতে চা-ই চাই পান্তা আর ইলিশ ।
সারাটা বছর কত ভাব দেখিয়ে
ঐ পান্তাগুলোকেই যারা দূরে ছুঁড়ে ফেলিস !
ঐ একটাদিন তারাই আবার চড়াদামে কিনে তা
কেন রে তবে গপাগপ করে গিলিস ?
কি মঙ্গল কামনায় কোন দেব-দেবীর পায়
নববর্ষে মনের হর্ষে এত টাকা ঢালিস !
হাহাকার ভরা ইলিশের বাজার তবুও কিনছ
হোক দাম তার হাজার বিশ ত্রিশ !
এদেশের ইলিশ শুন্য করতে যারা বাঙালীকে
পান্তা ইলিশের হুজুগ জুড়িয়ে দিয়েছিলিস ।
তারা সব ষড়যন্ত্রকারী অর্থলোলুপ অপরিণামদর্শী
মানুষের চিরশত্রু অভিশপ্ত ইবলিশ.......
কারণ, ঠিক যখন করেছ ইলিশভোজের মহাআয়োজন
তখন এক মা ইলিশ বাচ্চা দিত লক্ষ ত্রিশ চল্লিশ !
নববর্ষে সাদা লাল শাড়ী-পাঞ্জাবিতে তোরা
ঐ একদিনে বাঙালীয়ানা যত ফুটিয়ে তুলিস.........
পরের দিনই সব কাপড়গুলো খুলে অর্ধোলঙ্গ হয়ে
জবরদস্ত কেন রে সবে ওয়েস্টার্ন সেজে ফেলিস ?
আর বাকী ৩৬৪ দিন বাংলা বার-তারিখ
মাস-বছরগুলোকে অবলীলায় কেন তবে ভুলিস ?
তোদের ঐ অপসংস্কৃতিতে অত্যাচারিত মোদের পবিত্র
সংস্কৃতিগুলো হয়তো প্রভুকেও করছে কত নালিশ ।
বলি, এদেশ আর জাতির চরিত্র ধ্বংসে সদা উদ্যত
যারা তাদের তবুও তোরা বন্ধু কেন রে বলিস ?
বাঙ্গালী হয়েছ তো হয়েছে কি................?  
আর হুজুগে না মেতে সদা হুশ করে চলিস ।।  


রচনাকাল- ১২/০৪/২০১৭ ঢাকা।