ছিঃ ছিঃ ছিঃ তুই চোর ?
কত সুন্দর সুন্দর কথা বলে
ঐ দায়িত্বটা নিয়ে নিলে
অবশেষে হলে এমন জোচ্চোর ?
অর্ধেক জীবন অধ্যয়নে কাটিয়ে
এই তোর জ্ঞান আকলের দৌড় !
এত ডিগ্রী খেতাব পদ-পদবী
নিয়ে কি লাভ হলরে তোর ?
হবেই যদি তুই চোর !
তবে এত কষ্টে ব্যয়ে শিক্ষা দীক্ষা নিয়ে  
স্বজনের বুকে কেন জ্বালিয়েছিলে
প্রদীপ আশার আলোর ?
হয়েছিস বটে! অফিসার নেতা প্রফেসর
উকিল মুক্তার ডাক্তার ইঞ্জিনিয়ার
তবুও কেন হলেরে হারাম খোর ?
জনতার ভোট ভিক্ষায় গিয়ে ক্ষমতায়
প্রজাতন্ত্রের সেবা না করে
দেখাও তোমার ক্ষমতার জোর
তবুও হোক ,  
কিন্তু রক্ষক সেজে ভক্ষক হয়ে
কোটি মানুষের আমানত করে চুরি
কেন রে তুই পুরছিস উদর ?
ছিঃ ছিঃ ছিঃ তুই চোর ?
এত জ্ঞানী হয়েও
একটু বোধ উদয় কেন হলো না তোর ?
চুরি করে ভুঁড়ি ভোজে স্বীয় মর্যাদাকে
করে ভুলণ্ঠিত মহামানব না হয়ে
হয়েছিস একটা বুনো শুয়োর !
তোর সন্তানেরা যাবে যেথায়
সাড়া পড়বে কানা ঘুষায় বলবে সবায়
জানো, ওর বাপ একটা চোর !
মুখ টিপে হাসবে সবায় বলবে কথা
ঠাট্টা তামাশায় তাদের কলিজায়
ছেঁদ পরবে এফোঁড় ওফোঁড়
এই পাপের খেসারতে তোর উত্তর পুরুষেরা
জীবন করবে পার কত লাঞ্চনা গঞ্জনায়  
কোন মতে বাঁচবে তারা খেয়ে নানান পোড়
তুই চোর ? নাকি চোর সাহেব ?
কি বলে সম্বোধন করব তোমায়
কোন ভাষাই জানা নেই মোর !
তুই নেতা না খ্যাতা হও যত চ্যাতা
স্বনামধন্য গণ্যমান্য না মহামান্য
বলতে করিনা কার্পণ্য
বরং ঢোল পিটিয়ে বলবো তুই চোর......।
তুই চোর ! তুই চোর ! ব্যস, তুই চোর !  
পাপের সম্পদে স্বজনদের নিয়ে
সুখে থাকার এমন ঘৃণ্য স্বপ্নে থেকনা বিভোর ।