অনেক সিরামিক ইয়ার পরে
এ গ্রীষ্মের দুপুরে
এ নীরব বারান্দায়
           কিছু স্মৃতি
আটবেড়িয়ার রাস্তা ও তোমার মূর্তি
যদি এসে দাঁড়ায়,
যদি জীবনে আবার লাবণ্যতা বাড়ায়;
বল কেমন করে
চঞ্চল মনের ওপরে
অতীতের মুখরতা না ছড়ায়!
কেমন করে
ও হাত অনুভবে ধরে
এত পথ হলাম পার,
তা যদি একই সৌরভে
            আসে আবার;
তা যদি সামাজিকতা তাড়ায়
কাকেরই কর্কশ স্বরে---
বল আমার ঘরে
এ হতাশার গোড়ায়,
এ মরুভূমির চড়ায়
যদি হিমালয় আজ ঝরে
তবে ক্ষেত ফসলে যাবে না ভরে!
আবার তোমায় ভেবে
           তোমার অভাবে
বুড়ো বটগাছের ছায়ায়
বল কান্না নামবে না দু'চোখের চারধারে!