পুঁথির পাতায় অস্পষ্ট রেখায়
বাঁকা চাঁদ ।
কবেকার কোন প্রিয় মুখ
যেখানে কাটলে যতটা মানায় ।
অদ্ভুত এক ছায়া আঁকা আছে
কি জানি কে সে— কি জানি কি তার
ডাকনাম !
হয়ত কবিতায়— রাইকিশোরী
বনমালীর চোখে যেমন
অদ্ভুত এক ছায়া আঁকা আছে
অবিকল ।


সাজিয়ে ছিলাম মুখের আকার
সজল চোখে কাজলা বাহার
লাল সিঁদুরে রক্ত সিঁথি
যেন বধূ— যেন অতি-পরিজন
হাসিতে মুক্ত বিনম্র চাল
কবে, কোথায় যেন দেখেছিলাম !


অদ্ভুত এক ছায়া জেগে আছে পুঁথির পাতায় ।