এই যে মাঝে মাঝে আমার মন ভীষন খারপ হয়।
আকাশভাঙা বিষাদ আমার মনে জমা হয়।
চাদের আলোতে জোছনা কে খুজার উপদ্রব তৈরি হয়।
এরই মাঝে না আমি খুজে পাই হারিয়ে যাওয়া আলো,হারিয়ে যাওয়া আনন্দ,হারিয়ে যাওয়া মায়া।
এই যে মাঝে মাঝে চোখ দুটো নীরের মেলায় হারিয়ে যায়, কাজল চোখের তীব্রতা ভেসে উঠে,
অনুভুতির আচল আকরিয়ে ধরে,
রাতের আধারে অলিতে গলিতে হাটার ইচ্ছে হয়,
এরই মাঝে না আমি খুজে পাই অসীম স্বস্তি,
অনন্ত কাল বেচে থাকার প্রয়াস।
টিনের চালে টপাটপ বৃষ্টির ওই ধ্বনিতে এখনো কান পেতে রই, সাদা সাদা ফুল গুলোর স্নিগ্ধতায় খুজতে থাকি নিজেকে , চায়ের চুমুকে সুপ্ত মন হয়ে উঠে সুতন্দ্র।
এরই মাঝে না  খুজে পাই হারিয়ে যাওয়া ওই অনুভুতির
ছায়াকে,শান্তি সুখের বিলাসির কোণে জমে থাকা ওই চেতনাকে।
তবে মাঝে মাঝে আবার আক্ষেপ হয়,
কবে জানি  দিগন্তের আকাশে রংধনু উঠবে,
তারা গুলো খসে খসে পড়বে,
ওই যে কানে লেগে থাকা সৈকতের
ঢেউয়ের কলতান,তা কবে আবার আসবে।
এই আক্ষেপ আর আনন্দের বোঝা শুধু নহে মোর,
বসুধায় বসবাসকারী সবারি প্রানের বাসনার ঘোর।
এই আক্ষেপ আর পাওয়া না পাওয়ার গ্লানি নিয়েই কেউ আছে বেচে,আবার কেউ করেছে দেহত্যাগ।