কুড়ির ঘরে পা দিয়েছি
নিজেকে যুবক যুবক লাগে,
আকাশ, বাতাস এমনকি
বৃষ্টিতে ভেজা তরুলতাটিও,
আমাকে স্বাগত জানিয়েছে ৷
নির্জন দ্বীপের সুখ তারাটি
হয়তোবা কোন এক রমনী,
আমাকে পেতে চাইছে ৷

এ যৌবন আমার কাছে অপূর্ণ !
ভেবে দেখলাম কৈশরে
কি যেন ফেলে এসেছি ৷

কেউ কি আছো, তার
কৈশরের একটি বছর আমাকে দেবে?
বিনিময়ে আমি তাকে,
যৌবনের পাঁচ বছর দেবো ৷
কে না জানে,
যৌবনের কত মূল্য ৷
তাও আমি দেব
আমি কৈশর চাই, কৈশর ৷

সেই এক বছর,
আমার সব খায়েশ মিটিয়ে নেবো
কারো বাধা শুনবনা বলে দিলাম ৷

ভাত শালিকের বাচ্চা পুশবো,
খোলা জলে ডুব সাঁতার খেলবো,
কাগজের নৌকা ভাসাব কুমার নদীতে
তারপর, সন্ধা বেলা বাড়ি ফিরবো ৷
সত্যি বলছি, পাঁচ বছরই দেবো
একবার দিয়েই দেখনা কেউ,
আমার সেই, পুরানো কৈশর ৷