ঈদ এল বলে
হৃদয়ের পোষা শখে লাগল নতুনের দোলা
গরীব-ধনী হাওয়া মিশে হল আনন্দ নদীর ধারা
পাষানের কঠিন হৃদয়ে ফুটল সুপ্ত গোলাপের কলি
বাতাসের কৈছালি শরীর মেখে নিল দয়া আর মমতার সুর
গরীবের দুঃখীচুলায় সমস্ত বছরের অভিমান পুড়ে পুড়ে হচ্ছে আনন্দের সুখপায়েশ
বৈষম্যের পাথর শরীর সাম্যতার কোলে ঘুমাচ্ছে আয়েশে
পৃথিবীর শ্বাসে খোশবু
                 ম-ম গন্ধে প্রতিটি প্রাণ - আনন্দে আত্নহারা।


পাড়ার অনাথ শিশুটির কষ্ট-পৃথিবী ঢুকে পড়ছে সুখগ্রহে
মমতার ছোঁয়া পেয়ে বলছে নতুন স্বরে  - ‘ঈদে এত মায়া
দেন খোদা ধনীদের দিলে। বছরের সব দিন
যদি হতো ঈদ; কতা না সুখ পেতাম এই সুন্দর জীবনে।’