ওকে একটু খেতে দাও ।
আজ সারাদিন কিছু পড়েনি ওর পেটে।
ও তো মানুষ।


ওর মধ্যেও আছে রক্ত মাংস, মানবিকতা বোধ,
কিছু পাওয়ার আকাঙ্খা।
ও তো মানুষ।


ও যে পড়ে আছে রাস্তার এক কোণে।
কত ধুলোবালিতে গা আচ্ছন্ন;
গায়ে একটা শতচ্ছিন্ন নোংরা চাদর।
মাথার চুল উস্কখুস্ক,
দুনিয়ার ময়লায় পরিপূর্ণ।
দেখো একেবারে ডাস্টবিনের ধারে পরে আছে অবহেলায়।
কত মানুষ ফেলে দিয়ে যায় কত নোংরা আবর্জনা ঐ ডাস্টবিনে;
কিছু কিছু পড়েও যায় ওর গায়ে।


ও তো তোমার কাছ থেকে টাকা চায়নি।
কেবল ওর কপালে জুটেছিল লাঠির আঘাত।
একবার তো ওর একটা হাত তোমরা মেরে ভেঙ্গে দিলে।
কী দোষ করেছিল ও?
কোন এক অফিস বাবুর জামা ধরে টানছিল?
তোমাদের কোনো দোষ নেই।
কারণ, তোমরা হলে গায়ে গতরে আতর মাখা
ভালো খাবারে পুষ্ট হওয়া মানব সন্তান।


ও কিন্তু মানব সন্তান।
কিন্তু ওর কপালে জুটেছে শুধুই লাঠি, ঝাঁটার বাড়ি।
ওকে একটু খাবার ছুঁড়ে দিলেও কি তোমার হাত অপবিত্র হবে?
কিন্তু তুমি দেবে না।
কারণ, তোমার মন বর্বর, পশুর থেকেও হিংস্র, হিংসায় পরিপূর্ণ।
কিছুই দেওয়ার জন্য নয়,
শুধুই গ্ৰহনের জন্য ব্যকুল।