কে যেন বলেছিল
বেশী রাতে কিছু না বলাই ভালো
ভাষা জানাজানি হলে
লোকে বলে উঠবে শীৎকার
বলুক না হয় ওদের ভাষায়
তবুও ভাষা ভাসাভাসা হয়ে ওঠে
চরাই উতরাই খাঁদ হয়ে
ঢুকে যায় শরীর গভীরে
নাড়ি ছিঁড়ে বেরতেই
তখন দু-আঙুলের ভাঁজ
নতুন সূর্যকে স্পর্শ করে
দুধদুধ গন্ধ গায়ে লেগে থাকে
এখুনি শব্দ গুলো বড় বড় হবে
বাক্য হয়ে যাবে
প্রতিবাদী কালিতে স্নান সেড়ে
তালি দিয়ে খুঁজে বের করবেই
নতুন যুগের হাতিয়ার
প্রস্তরযুগ পার হয়ে
মধ্যযুগের শৃঙ্খল ভেঙে
একুশের জয়গানে উৎফুল্ল
সৃষ্টির অনুকূলে ফুলে ফুলে
পৃথিবীর একএক মুখের ভাষা
উড়ে যাবে মহাশূন্যে
মহাকালের সাথে মিশে
সেখানে কান পাতলে
শুধু ধ্বনির প্রতিধ্বনি