সহস্র শতাব্দী পর নিঃছিদ্র অন্ধকারে
আশাহত হতাশায় ডুবন্ত এক প্রদীপ
চেতনার আলো আকড়ে নিয়ে
শিকড় না উপড়ানো নির্লিপ্ত সূর্য
উকি দেয় খণ্ডায়িত আলোকরশ্মি।


প্রজ্বলিত আলো গর্ভেই থাকে
গড়ায় সময়- ক্রমাগত বিস্তার আলোকবিশ্ব
ভূপাতিত সহস্র নক্ষত্ররাজি- মৃত্যু অবতার
কেড়ে নেয় গর্ভের খণ্ডায়িত দেহ
শত ধ্বংসের মাঝে আমি আলোকরশ্মি দেখি।


অস্থির নিষ্ঠুর অপেক্ষারা গুণে প্রহর
কান পেতে শুনে অনলক্লান্ত বিস্ফারিত শব্দ
সমগ্র হৃদয়স্রষ্টা চিতায় জ্বালিয়ে
জন্মাবেই- গর্ভজাত আলোকরশ্মি
তারই চিৎকার।