প্রত্যক্ষ অভিজ্ঞতার ভেতর গুঁড়িয়ে যাচ্ছে
ধানক্ষেত ভরা স্বপ্ন নিয়ে প্রিয়তমার নরম স্তনের দিকে
এগিয়ে যাওয়া একটা মুখর পৃথিবী!  
রক্তমাংস থেকে ছিঁড়ে যাওয়া পাখিদের আর্তনাদে
ভরে উঠছে বায়ুমণ্ডল; ঊরুসন্ধিতে নেচে ওঠা আঙুলগুলো
কেবলই বিশ্বাসঘাতকতা করছে
আর চেনা দৃশ্যের ভেতর দিগ্বিদিক ছুটে বেড়ানো
ক্রিয়াপদগুলো নিয়ে সরবরে ঢলে পড়ছে চাঁদ;
এই চাঁদ আমার খুব চেনা—
ক্লান্ত পথিকের হাত থেকে খসে পড়া নিঃসঙ্গ রুমাল!
সমস্ত প্রার্থনার ছলে এই অবরুদ্ধ সময়ে
যখন তোমাকেই শুধু ছুঁয়ে থাকতে চাইছি
তখন কেবলই দূরত্ব বাড়ছে!
কাঁচের মতো নিমেষেই গুঁড়ো গুঁড়ো হয়ে যাওয়া এইসব দিন
আর রাত্রির ফাটলে জমে ওঠা নিদ্রাহীন যাপন—
কোথায় নিয়ে যাচ্ছে আমাকে ?
ভয় পাচ্ছি—তোমার সুখের সাজানো বাগানে এতো মৃত্যুগন্ধী ফুল!