যেখানেই যাই --
আলপথ নদীপথ সমুদ্র কিংবা সবুজের নিরবতায়
থাকি যত আত্মমগ্ন নির্লিপ্ততায়
সদর দরজা
একটি উঠোন
একটি বাড়ি
নিরবধি ডাকে আমায় ।
যখন আলেয়ার মত পিছু পিছু হাতড়ায় স্মৃতি
তখন মগ্নতার বাঁধন ছিঁড়ে ছিঁড়ে যায়
হৃদয়রাজ্যে কুহক জাগে
কে ডাকে আমায়
পরম মমতায় ?
মা মা মা !
কি এক কান্নার দমকে কাঁপে গা
মা যেন ডাকে আমায়
পরম কোমল মমতায়
মা ডাকে খোকা আয়, আয় বাড়ি ফিরে আয় ।
যত ব্যস্ততা যত নিস্পৃহতা
প্রমত্ত যত মত্ততা
ভুলে ভুলে যাই
সাড়া না দিয়ে আর কি পারা যায়
বলি মাগো এইতো; যাই মা যাই ।
সদর দরজা খোলাই থাকে
ধান খেতের মৃদুল হাওয়ায়
উঠোন আমায় অভর্থ্যনা জানায়
শান্ত জলের ছোট পুকুর
সম্ভাষণের  নূপুর বাজায়
তাই ফিরে আসি আমার আপনালয়ে নানা বাহনায়।
বাঁশ বনের শান্ত ছায়ায়
যেথা আমার দাদা-দাদি চির ঘুম ঘুমায়
তারাও ডাকে আমায় আয় দাদু ভাই
তোর আপন নীড়,  নাড়ি তোর পোঁতা যেথায় ;
এ ভিটে ছেড়ে যাসরে কোথায় দাদু ভাই ?