স্তব্ধতার ডাকে
দেবপ্রসাদ জানা
  ২৫.৪.২০২১


কালরাতে পূর্ণিমার অলৌকিক চাঁদ
কোন কথা বলেছিল,আঙিনায় ঝুঁকে
শুকনো করবী গাছ,জীবনের খোঁজে -
দোরেদোরে খুঁজে ফেরে,বোধের পোষাক।
বাঘবন্দী খেলা খেলে,দেখো চারপাশে।
গৃহস্থের ঘর থেকে পচা মৃতদেহে
শুধু শবগন্ধ জাগে,রৌপ ধুম্রজালে।
কোন অশুভক্ষণে যে জন্মেছ পৃথিবী-
আদিম নেশা লেগেছে,তব পরিবারে।
মৃতদেহে হাহাকার,জলন্ত শ্মশানে।
তিরিতিরি ভেসে যায়,ধোঁয়ার কুণ্ডলী -
স্তব্ধ নক্ষত্রের দিকে,একা করিডোর
জুড়ে,পাহারায় থাকে, মৃত শবগন্ধ।
বিষবৃক্ষের সন্ধানে,ছদ্মবেশী পোকা
কৌটিল্য কৌশল বাঁধে,মেঘের আড়ালে।
ভোগের অশেষ মোহে,নরম শরীরে-
ঋতুচক্র চক্রাকারে,এসে চলে যায়
পিছু ধাওয়া আলেয়া,কুণ্ডলী পাকিয়ে।
জেনো শেষ পরিণতি না জাগে সুমতি,
দলবদ্ধ পিপীলিকা,সারিবদ্ধ হয়ে,
নির্বাক নিস্পন্দ রবে,ফের বারমাস।
প্রাণদায়ী জীবসুধা আনন্দবর্ধন
কার কান্না,অভিশাপে,মৃতের লহর।
শুনছ কি বসুন্ধরা,স্তব্ধতার ডাক।