কদম বৃক্ষের মড়মড়ে
একা একলা পাতার ফাঁকে
একাকি একফালি চাঁদ,
চাঁদের আগুনে পুড়ছে রাত্রি
নাগরিক দেয়ালিকায়
আহত শ্যাওলার ফাঁদ।


রাত্তিরজুড়ে অগোচরে ভাসে
কুয়াশাক্রান্ত ঘোর শূন্যতা,
মূর্ছনা মোদের নগ্ন অবান্তর
চাঁদের মগজে ঘুণেপোকা।


পাল্টালো নাগরিক আকাশ
পাল্টালো ভিনদেশী বাতাস
পাল্টালো বেড়াজাল শহর
পাল্টালো সমুদয় বন্দর


বদলালো রাষ্ট্র
মানুষ, সুরেশ
বদলালো কাল
কানুন, নির্দেশ


বদলে গেছে পাখিরাও
বদলে গেছে প্রেমী
পাল্টে গেছে সাগরিকা
ডুবে গেছে দূরগামী।


তবু,পৃথিবীর বয়সিনী চাঁদ তুমি
আজও ঠিক তেমনি শুভ্রদীপ্তিময়
যেমন ছিলে সহোদর পৃথিবীর শিরে
কাল সূচনার সাক্ষে নিরন্তর তন্ময়।


এমনই প্রত্যহ বিনিদ্র শর্বরী
ব্যস্ত ল্যাম্পপোস্ট যখন নিঃসঙ্গ?
জোছনার হ্যারিকেনে আঁখি জ্বেলে
পথের হাওয়ায় ধুলোয় হাত পা চুবিয়ে
একরকম উদাসীন পরিব্রাজক বনে যাই,
ক্লান্ত আঁধারে চন্দ্র ছায়ায় তোমারে কুড়াবো বলে।