পরীক্ষায় দু এক নম্বর কম পেল কি পেল না
এসব নিয়ে অসিত ভাবে না
সে নিজেকে দোষ দেয়
'কেন যে আমি মনীশের মত পারি না, কে জানে?'


মনীশ দু এক নম্বর নিয়ে খুব দ্বন্দ্ব করে
নিজেকে অনেক উপরে রেখে
সবার সামনে পেছনে ভেতরে বাইরে
দোষের পিঁপুড়ি বাজায়।


মনীশ বরাবর ফার্স্ট হয়, স্কুলে কলেজে ও কর্মে।
আর অসিত এইসব দ্বন্দ্বে মানুষের হাত তোলে
বলে 'থাম ভাই, থাম।
জীবন কখনও ফার্স্ট সেকেন্ড নয়, সে যে সবার।'