এই কূল আর ওই কূল কহে
ঘন নিঃস্বাস ছাড়িয়া,
তটিনী মোদের করিয়াছে দূর
হরিষ বিষাদ ভুলিয়া।
কভু মনে হয় ঐপারে যতো
প্রিয় পরিতোষ বাঁধিয়া,
রাখিয়াছো তুমি এপারকে বড়
একাকী নিঃস্ব করিয়া।


তুমি ভাবো কায়া সিক্ত করিয়া
সলিলকে ছুঁয়ে যায়,
জেনো হেথা খরা পরান ভরিয়া
অনলে জ্বলিছে হায়।
এক বর্ষার  মিলনে সুতনু
হিমাদ্রি নাহি পায়,
মেঘের কাছে জলের দুরাশা
চাতকিনী রূপে ভায়।


ওপারে সকল শমগুণে থাকে
তোমারই বেদন ঠাঁই,
হাসিয়া বলিলে...বক্ষ খননে
ব্যথা কি ভুলিতে চাই ?
শঙ্খধ্বনির ঘৃত সুর যদি  
নদীর এপারে বাজে,
জেনো সখা এই চির হরণের
পীড়ন সেথায় সাজে।    


সরিৎ চলিবে আপন ধারায়
করিবে সে পারাপার,  
সুখদুঃখের নিয়ত সাধনে
হৃদয়ে জমিবে ভার।
গগন যদি গরজে কভু
মেঘ ঘন বরষায়,  
অরুণ কেতন সাক্ষী হইবে
অযাচিত নিরাশায়।  


১২/০১/২২
সংযুক্ত আরব আমিরাত