অম্লজান

অম্লজান
কবি
প্রকাশনী এক রঙ্গা এক ঘুড়ি
সম্পাদক নীল সাধু
প্রচ্ছদ শিল্পী নবী হোসেন
স্বত্ব লেখক
প্রথম প্রকাশ ফেব্রুয়ারি ২০২০
সর্বশেষ সংস্করণ ১ম
বিক্রয় মূল্য ১৫০/=
বইটি কিনতে চাইলে এখানে ক্লিক করুন

সংক্ষিপ্ত বর্ণনা

সমসাময়িক প্রেক্ষাপট, স্যাটায়ার, মানবতাবাদ, জীবনবাদ, প্রেম ও বিবিধ বিষয়ক।
কবিতা সংখ্যা : ৬৪
বৈশিষ্ঠ্য : অম্লজান ছাড়া সবগুলো কবিতার নামই বিদেশী ভাষায় (৬২টি ইংরেজী, ১টি আরবী) ।

ভূমিকা

আ‌মি যখন ছোট ছিলাম তখন আমার ঈ‌দের এক অত্যাবশ্যকীয় অংশ ছিল আমজাদ হো‌সেন এর ঈ‌দের নাটক যেখা‌নে জব্বার আলী ছিলেন, ছিল তার ছে‌লে মে‌য়ে জবা,কুসুম, রোকন, দুলাল আর আর ছি‌লেন জব্বার আলীর স্ত্রী, জবা, কুসুম, রোকন, দুলা‌লের মা। প্র‌ত্যেক ঈ‌দে এই প‌রিবার আস‌তো ঈ‌দের নাটক হ‌য়ে। আ‌মি এবং আমার ম‌তো কো‌টি দর্শক বুভুক্ষুর ম‌তো অ‌পেক্ষা করতাম তা‌দের জন্য, ঈ‌দের রা‌তে। আমার নি‌জের জীব‌নে এক সন্তান, তার নাম রাইম। রাইম এর আম্মা (আমার স্ত্রী, বাই দা ও‌য়ে)-র দুঃখ কেন রাইম এর আর ভাই বোন হ‌লো না, বেচারা একলা, এইসব। আ‌মি বোঝাই। কখ‌নো বো‌ঝে, কখ‌নো না। তারপর আ‌মি ঠিক করলাম রাইম- ই আমার জবা, কুসুম, রোকন,দুলাল আর রাইম এর মা-ই জবা, কুসুম,‌রোকন,দুলা‌লের মা। আ‌মি ঐ না‌মে রাইম এর মা কে ডা‌কিও। তি‌নিও ভা‌লো সাড়া দেন। "অম্লজান" আমার "জবা,কুসুম,রোকন,দুলা‌লের মা" কে। কারণ তি‌নি নি‌জেও আমার অম্লজান।

ফারহাত আহ‌মেদ
‌মিরপুর DOHS, ঢাকা।

উৎসর্গ

জবা, কুসুম, রোকন, দুলালের মা' কে

শেয়ার করুন: