“পনেরোটি বছর কেটে গেলো কী ভাবে -”!!
মনে তো হলো- এই সেদিন
প্রাণের প্রজাপতি হয়ে এসেছিলে তুমি
রংহীন এ আকাশ আমার করেছিলে রঙীন ।
নূতন ঘুড়ির মতই আজও ঐ আকাশে রঙীন
আমারও ভূমিকা তেমনই
দিনে দিনে তুমি আরো শক্ত বাধনে
বাঁধিছো আমায় কেবলই ।
যেনো স্বপ্নহীন ছিলো এ প্রাণ আমার
ছিলো না তো লক্ষ্য কোনো কাজে
আজ তুমিই কেন্দ্রবিন্দু আমার
এই জীবন-বৃত্তের মাঝে ।
দিনের সূর্য যেনো তুমি,
আর মায়াবী আলো ঐ পূর্ণিমা রাতে
চিরসবুজের তুমি চাঁদোয়া প্রভাতে
তোমাতেই হারাতে চাই অনন্তকাল আর ভবিষ্যতে ।
আজও অবধি না দেখা স্বপ্নগুলো
শুধুই তোমাকে ঘিরে
ফেলে আসা মুখোরিত দিনগুলো
ঘুমিয়ে আছে স্মৃতির গভীরে ।
যদি কখনো এ জীবন-তরী ছুটে লক্ষ্যহীন
একপ্রান্ত হতে অন্য কোনো প্রান্তে
আবার হারানো কূল ফিরে পায় যেনো
তোমারই ভালোবাসার ছোঁয়াতে ।
জীবন-যুদ্ধের এই ছোট্ট ঝুড়িতে
কখনো কখনো হাঁস-ফাঁস লাগে
তবুও তো হয়নি ছন্দ-পতন তোমাতে
দূ:খে-সুখে কিংবা রাগ-অনুরাগে ।
তুমিহীনা এ জীবন আমার
কখনো তো ভাবি না
এক বসন্তের পরে আরো বসন্ত আসুক
শুধু এই তো করি প্রার্থনা।
এই জীবনে,
কখনোই শোধিতে পারবো না
তোমার যত ঋণ
ছন্দময়, আরো আনন্দময় হোক আমাদের জীবন
এই প্রার্থনা করি প্রতিটিদিন ।।


(বি:দ্র: ১৫তম বিবাহ বার্ষিকী উপলক্ষ্যে )