কবিতা মালা ভাগ-৩

সংক্ষিপ্ত বর্ণনা

তপ্ত কড়াই

ভরসায় ভরে, গরীব ঘরে-
শূন্য কড়াই, উনুন ’পরে ,
যুগ-যুগ ধরে, জ্বলে সজোরে ,
টুকরো মুখে, পাবার তরে !

কড়াই জ্বলে-জ্বলে, তপ্ত লাল !
ঘরেতে নাই কোন সম্বল -
জীবন সেথা চির অচল ;
দু’এক ফোঁটা, দিলে ও জল
হয় না কড়াই, ঠাণ্ডা-শীতল !
ছ্যাৎ করে ধরে, বাষ্পের সকল
ভুখা কাঁদে, রয়ে বেহাল !

ভাবে গরীব, কপাল-কপাল !
উপায় বিহীন, এই আকাল -
অভাব খাবার, শুষ্ক গাল -
খাটছে তবু সন্ধ্যে সকাল ৷
রাজক এলো ,রাজক গেল-
কৈ-বা তারা আপন হল ?

তপ্ত-লাল, উননে কড়াই -
অভাব সেথা, নাই ভরপাই !
তবু জ্বালায়, আশায় উনুন ,
যদি কখনো জোটে নুন !

(ইং-২৫-০৬-২০১৭)
হিন্দী শব্দ, সকল > শরীর, চেহারা

ভূমিকা

আমার কথা .
কবিতা লেখার উদ্দেশ্য ,মানবে চেতন- অবচেতন মনে, অসীম-অসীম ভাবনা লুকিয়ে আছে ! সে সমস্ত জ্ঞান যদি জাগ্রত করা যায় তবে নিজ তথা সমাজের কল্যাণ হতে পারে ৷ সাথে ভাল-মন্দ, ন্যায়- বোধ হৃদয়ে জাগে, জিজ্ঞাসু মন কিছু পেতে চায় ! যদি এ কাব্য কারো একটু সাড়া দেয় ,আমি পরম চরিতার্থ হব ৷ এর পূর্বে আমার কাব্য গ্রন্থ ,ভাগ-১ ও ভাগ-২ আগে প্রকাশ পেয়েছে ৷
এখন বঙ্গাব্দ ৯-ই অগ্রহায়ণ ১৪২৪ (ইং-২৬ নভেম্বর ২০১৭) আমার কাব্য গ্রন্থ কবিতা মালা ভাগ-৩ প্রকাশিত হল । সমস্ত প্রবুদ্ধ জনে মিনতি ভুল-ত্রুটি নিজগুণে মাপ করে দেবেন । সকলের প্রতি শুভেচ্ছা ,শুভকামনা রহিল ।
ধন্যবাদ
নিবেদক ৷
গোপাল ছন্দ্র সরকার

শেয়ার করুন: