প্রতহ্যের ন্যায় পৃথিবীতে উষার কিরণ পরে
নিয়ম মাফিক রবি এই ধরার ঘূর্ণন পূর্ণ করে।
ঊষার আলোয় জেগে উঠে পৃথিবী
ফুল ফুটে, সুভাষিত করে চারপাশ।
ফুলের রংয়ে রাজ্ঞায়িত প্রকৃতি।
পাখিরা ছড়িয়ে পরে ধরার বুকে
প্রাণ ছড়িয়ে দেয় পৃথিবীতে।


এই প্রাণের স্পন্দনে সবাই উঠে জেগে
শূণ্য থেকে পূর্ণ
শাখা থেকে পাতা
বিন্দু থেকে সিন্ধু
সবায় উঠে জেগে।


শুধু একটি ডানা ভাংগা পাখি
পাহাড়ের চূড়ার সুউচ্চ শাখে
অসার বদনে শূণ্য নয়নে, পরে থাকে।


পাখিরা দলে দলে উড়ে যায়
ডানা ভাংগা পাখিরে ডেকে যায়।
মেঘেরা উড়ে যায় বৃষ্টিতে তাকে ভিজিয়ে যায়।
বাতাসেরা বয়ে যায়, তাকে আলতো ছুয়ে।


তবুও, পাখিটি জাগে না।
পরে থাকে নিথর বেশে
শূণ্য আকাশের পানে চেয়ে,
দিনের বেলায় রবি কিরণ
রাতে চাঁদের জোসনা।
বেলা বহে যায় এভাবেই।


হঠাৎ স্বর্গ হতে নেমে আসে
Graceful Soul.
কানের কাছে কি যেন মন্ত্র পড়ে যায়।
নিথর পাখি জেগে উঠে, সব আড়মোড়া ভেংগে।
ডানা ঝাপটায় উড়ে যেতে চাই সেই Graceful Soul এর সাথে।