#পুজোর গন্ধ#


15/9/2016
লীনা দাস
ইছামতির নদীর ধারে আর কি কাশফুল
ফোটে?
নদীর চরে এখনও ভোর রাতে ডাহুক পাখি ডেকে ওঠে?
শৈশবের স্বপ্নগুলো কেমন করে যেন,
বদলে গিয়েছে জীবনটায় মা গো!
মহালয়ার ভোর রাত থেকে শিউলিফুল
কুড়ানো,
কাশফুলের ঝাড়ে দুধ-সাদার মেলা দেখা,
সেখানে আমি যেতে চাই ফিরে মা!
মা,তুমি তো এলে,কিন্ত আমার শৈশব
দিলে না ফিরিয়ে?
জানি আমি যদিও,"যা হারায়ে যায় কভু
আসে না ফিরে"।
শহরের আভিজাত্যে যখন নিজেকে হারিয়ে ফেলি,
শৈশবের দিনগুলি বড় মনে বাজে।
কচু পাতা দিয়ে ফড়িং ধরা!
মিছিমিছি মাছরাঙা পাখী ধরা!
সব হারিয়েছি আমি চেনা ছবিগুলো।
আকাশে বাতাসে কেবল উত্সবের দোলা
এখন।
কাশফুলের গন্ধে মন আকুল করা সকালে
ঢাকের বাদ্যি,মায়ের বার্তা,ঘর ছেড়ে আয় তোরা ,আমার সঙ্গী হতে।
মাত্র তিনদিন,কান্না ছেড়ে;
থাক ভুলে সব দুঃখ,মা ডেকেছেন আয়
তোরা সব আয়।
তিন দিনের পর,শুধুই অপেক্ষা,
তোমায় ভরসা করে ফের বসে থাকা
আরও একটি বছর মা!
যদিও জানি আমি শৈশব আরও একটি
বছর পিছবে
আরও একটি বছর হারাব বাঁচার জীবন
থেকে।