সোনাবন্ধু তোর পিরিতে বাড়লো শুধু জ্বালা,
না মিটিলো মনের আশা, অন্তর পুড়ে কালা৷
অকারণে হইলাম দোষী, লোকে মন্দ গায়!
ফুলের মধু খাইয়া রে তুই এখন চলিস বাঁয়৷


নষ্ট করলি সোনার অঙ্গ, ভেঙ্গে দিলি মন,
তোরে বিশ্বাস করে আমার দুঃখে কাটে ক্ষণ৷
সরল মনে দিলি দাগা, দুই চোখে বয় ব্যথার নালা,
পিরিত নামের ধান্দায় পড়ে বাড়লো আমার জ্বালা৷


তোরে আপন ভাবা বন্ধু হইলো আমার কাল,
ছলনাতে সব কাড়িলি, বুঝলাম না হলচাল!
অনেক লোকে বলেছিলো নেই নি কথা কানে,
তুই যে বড় ধোঁকাবাজ রে হয় তো তারা জানে৷


তাদের কথা শুনলে আমার হইত না এই নাশ,
ভালোবাসার অভিনয়ে দিলি রে তুই বাঁশ!
পথ হারিয়ে কামের মোহে বিধির দ্বারে দিয়ে তালা—
পাপ-পুণ্যের হিসাব ভুলে পিরিতে আজ জ্বালা৷


রচনাকাল— ১৯|১১|২০২০