হরিণা নদীর ডুবোচর
জসীম উদ্দীন মুহম্মদ
-----------------------------
আজকাল মোটেই কবিতা লিখতে পারিনা.....
আবার না লিখে থাকতেও পারিনা
এই যে লিখতে না পারার মধ্যেও কদাচিৎ লেখা,
এর উপমা যেনো হাজার বছর পর কোনোএক
উত্তাল সমুদ্রের মাঝখানে হঠাৎ তোমাকে দেখা!


একদিন পৃথিবীর কোথাও কবিতা ছিলো না
আমিও ছিলাম হরিণা নদীর ডুবোচর
অতঃপর একদিন তুমি এলে, কবিতাও এলো
তবে একের বামপাশে অজস্র শূন্যের মতো
এখন তুমিও যেমন আমার পর, তেমনি কবিতাও
ফিরে গেছে তার নিজের ঘর!!


জানি, এমনি করেই আমার হাতে একদিন সাজবে
পাতার বাঁশির সুর
তুমি তখন অন্যকারো ঘরণী..নক্ষত্রের মতো দূর-
বহুদূর!
এতোসব কিছুর জন্য আমার বালিশ কিংবা
তোষকের ভেতর লুকানো কোনো উপমা, অলংকার,
বা অনুপ্রাস নেই
একদা অন্ধকার জলের ভেতর যেমন ছিলাম
এখনও আমি আছি ঠিক যেনো সেই..সেই...সেই!!