=======================


একটা সময়ে,
নিজেকে বিপ্লবী ভাবতে খুব ভালো লাগতো।
রং চটা জিন্স আর
চে গুয়েভারার ছবি সহ গোল গলার গেঞ্জি,
সিগারেটের পর সিগারেট,
কথায় কথায়, কথার ফুলঝুড়ি
বাবড়ি চুল, শানিত চোখ, তীক্ষ্ণ দৃষ্টি
সব কিছু ভেঙে চুরে এ পৃথিবীটাকে
নিজের মতো গড়ে তুলতে,
কি এক আশ্চর্য প্রতিজ্ঞার অফুরন্ত প্রাণশক্তি।
নিজেকে কখনো কখনো
আলেকজান্ডার, নেপোলিয়ন, সাইরাস, পিজারো
কিংবা চেঙ্গিস খান এর চেয়েও অপরাজেয় মনে হতো।
বজ্র শাসন, রক্তচক্ষু, লাঠিচার্জ, টিয়ার গ্যাস, বুলেট
কি করে রুখবে সে উদ্দাম প্রমত্তা স্রোত,
মৃত্যু যখন দূর অস্তগত।
মাথায় তখন একটি আকাশ থাকতো,
মনে বহতা নদী,
হাতের মুঠোয় একঝাক জোনাকির আলো,
নিত্য স্বপ্নের সারথি,
বদলে দিতে হবে জরাগ্রস্ত এ পৃথিবী।


জীবনের সেই সময়টা খুব মনে পড়ে,
জীবন মানেই ছিল যখন দেশ মাটি মানুষ।
আর
পৃথিবীটা বদলে দেয়ার এক বিপ্লবী স্বপ্ন,
যেটা এখনো খুব জীবন্ত।


====================================