==============================
কবিতা লিখার সময়টা, কবি'র দারুন কাটে,
নিজের মতো, নিজের করে,
ভাবনা ঘোড়া ইচ্ছে মতো ছুটে চলে।
কবির স্বপ্নালু চোখ দুটি চক চক করে,
নরম এক অপার্থিব আলোতে,
স্বপ্ন ডিঙ্গা পাল তোলে।
ছন্দের তাল লয়  হীন নৃত্য ,
বেয়ারা শব্দের অভিমান বিদ্রোহ,
প্রেম, বিরহ, ঘৃণা, ভালোবাসা,
সংসারের টানাপোড়েন, শংকা, দ্বিধা,  
কবি প্রাণ ভরে উপভোগ করে।
কবিতার খাতায় আঁকিবুঁকি,
কখনো কবিতা হয়ে উঠে,
আর কখনো কখনো ছন্দ হীন শব্দের শোক মিছিল,
তার ছেঁড়া বেহালার বেসুরো সুরের মতো,
বাতিল কাগজের স্তূপে ঠিকানা খুঁজে।
তাতে অবশ্য কবির কিছু যায় আসে না।
কবি বরং আনন্দেই থাকে।
কবিতার খাতায়, সময় ঘড়ি বন্দি  করে,
কবিতার পাতায়, নতুন করে লিখার ছলে,
আরেকটু সময় না হয় কাটানো যাবে।


কখনো কখনো কবি,
কবিতা লিখার ভীষণ আনন্দে,
স্থান কাল পাত্র ভুলে, মেতে উঠে, নাচে গানে,
আর কখনো,
কবিতা লিখতে না পাড়ার অসহ্য যন্ত্রনা বুকে চেপে,
সাদা কাগজ ভরে তোলে এলোমেলো ছন্দে।
যদি বা কখনো শব্দগুলো,
একটা কবিতা হয়ে উঠে।


আসলে ,
কবিতা হোক বা না হোক,
কবিতা লেখার সময়টা কবির খুব আনন্দেই কাটে।    
এমনকি, কবিতা লিখতে না পারার সময়টাও,
কবিতা লিখার সুদৃঢ় প্রতিশ্রুতির মোহ,
কবিকে স্বপ্নাবিষ্ট করে রাখে।
=================================