ঝরা পাতায় ফুলেফুলে ঢেকে গেছে কৃষ্ণচূড়া গাছটা
হাস্নাহেনা ফুলের গন্ধে অগোছালো চুলে
বেণী করা হয়নি আমার,
লাল সাদা ফুলে নিজেকে রাঙিয়ে
অপেক্ষায় থাকি তোমার।

কি এক অব্যক্ত বাসনায়
তোমাকে খুঁজে ফিরি সারাক্ষন,
মনের গহীনে বারবার ভেসে আসে অজানা সব ভাবনারা,
বিরামহীন পথচলা কখন যে থামবে
কান পেতে শুনি ইস্টিশনের হুইসেলে শব্দ
এই বুঝি তুমি নামবে।

প্রহর গুলো কাটে অজস্র ভাবনায়
ফুলের সাথে কথা বলি মন থাকে জানালায়
দূর থেকে যদি কেউ ডাকে আমায়
গন্ধ বিলিয়ে দিব তারে নির্ভাবনায়।

তুমি শোধাবে আমায়,
কেমন তর অনুরাগ তোমার মাঝে আমার
বিরাগে মুখ ফিরিয়ে নিলে
বলবো কি করে প্রণয়ের অবারিত সুখ কতটুকু দিলে।

স্নেহ, মমতায় কেন জড়ালে আমায়?
সংযোজন-বিয়োজন হিসাব করে দেখিনি তোমায়।
কতটুকু দিলে কততুকু নিলে
ভাবিয়া দেখিয়াছো তা হৃদয় খুলে?

একবার ভাবো মনেমনে আমার জন্য
যাহা দিয়েছি তাহা কি নয় স্বার্থশূন্য?