আমি যৌবন তাড়নায় উদ্দীপ্ত প্রেমিক
যৌবন আমার আজ স্থবির, তবুও
অসম্ভব ধৈর্য্যে ছুটে চলেছি তোমার পিছে পিছে..
কেন জানো..?
তুমি আমার ভালবাসার চন্দ্রবিন্দু বলে।
তোমার কোলে মাথা রেখে,
জ্যোৎস্না ভরা চাঁদের আলোয়
নীল আকাশের তারা গুণব বলে।
এখন পর্যন্ত-
অনেক বার কাছে পেয়েছি,
কিন্তু স্পর্শ করিনি।
ছুঁয়ে দেখিনি, তোমার কোমল হাতে
ভালবাসার অনুভূতি কতটুকু।
চেকে দেখিনি,
তোমার ভালবাসার মুদিরাও পান করিনি;
শুধু চোখ ভরে দেখেছি, আর
মন ভরে চেয়েছি-
যদি আসে সেই শুভ দিন..!


আমি যৌবন বিড়ম্বনায় তাড়িত যুবক
নিশ্চল এ দেহ আজ ঘুনে ভরে গ্যাছে,
তবুও আমি অসম্ভব ধৈর্য্যে
ছুটে চলেছি তোমার পিছে পিছে।
যৌবনোদ্যানে-
তুমি জায়গা দিবে
আমি বীজ বুনবো, অতঃপর জল দেব।
তুমি ফুল তুলবে,
আমি মালা গেঁথে তোমার গলায় পরাব;
তুমি হাসবে, আমি চেয়ে থাকব
একান্তে, নিমগ্ন নেত্রে।
তোমার অক্ষির জলছায়ায়
ভাসবে তব আকুল মন,
তোমার প্রকম্পিত অভ্রম ভালবাসার
মুদিরায় পরিতৃপ্ত হবে
মম বেআকুল এ যৌবন।
কায়মনে আমি চাই,
তুমি ডাকবে আমায়।
ব্যাকুল পিয়াসে তুমি চেয়ে থাকবে,
ঘর হতে আঙ্গিনায়..
শুধু আমারি প্রতীক্ষায়।
কিন্তু এ স্বপ্নশিখা নিভে গেলে হায়..!
প্রেমহীন অবশ যৌবনে
ছুটে চলব নির্বাসনের দিকে,
অজানার দীপে। তবুও বলব-
হবে না-আ-কি ঠাঁই একটু খানে..?
তোমার ভালবাসার কাষ্ঠে গড়া
তরীটির এ্যাক কোণে।


আমি যৌবন তাড়নায় উদ্দীপ্ত প্রেমিক
যৌবন আমার আজ স্থবির।
অসম্ভব ধৈর্য্যে চলেছি অচীন দেশে
কেন জানো..?
তুমি আমার ভালবাসার চন্দ্রবিন্দু বলে।
পর জনম হলেও
ঘুমোতে চাইযে আমি তোমারই কোলে।